Home / স্বাস্থ্যসেবা / ইফতারে বাড়তি পুষ্টি স্ট্রবেরিতে

ইফতারে বাড়তি পুষ্টি স্ট্রবেরিতে

পুষ্টির আধার
অনেকেই বলে, ফলের রাজা আম। আর রানি বলা হয় কিন্তু স্ট্রবেরিকে।

দেখতে অসাধারণ এই ‘রানি’র পুষ্টিগুণের অভাব নেই। এর অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, ভিটামিন ও খনিজ স্বাস্থ্যের যত্নে অতুলনীয়। ফোলেট, পটাসিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, ভক্ষণযোগ্য ফাইবার আর ম্যাগনেসিয়াম রয়েছে এতে। উচ্চমাত্রার ভিটামিন ‘সি’ও কম নেই।
চোখের যত্ন
আপনার চোখের যেকোনো সমস্যার প্রাথমিক কারণ হলো বিষাক্ত উপাদান আর নির্দিষ্টি কিছু পুষ্টি উপাদানের ঘাটতি। বয়সের কারণেও অনেক পুষ্টি উপাদানের ঘাটতি দেখা দেয়। এ ছাড়া ক্ষতিকর অক্সিডেন্ট বা বিষাক্ত উপাদান চোখের মারাত্মক স্বাস্থ্যহানি ঘটায়। অতিমাত্রায় শুষ্ক চোখ, অপটিক্যাল নার্ভের বৈশিষ্ট্য বদলে যাওয়া, ম্যাকুলার ডিজেনারেশন, দৃষ্টিশক্তি কমে আসা ইত্যাদি সমস্যা থেকে মুক্তি দেয় স্ট্রবেরি। ফ্লেভোনয়েড, ফেনোলিক সাইটোকেমিক্যাল আর এলাজিক এসিডের মতো অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট রয়েছে স্ট্রবেরিতে। চোখের ভেতরে এক ধরনের চাপ কাজ করে, যাকে বলা হয় ‘অকুলার প্রেশার’। এই লাল ফলটি চোখের চাপ কমায়। সঠিক চাপ বজায় রাখতে কাজ করে এই ফলের পটাসিয়াম।

রোগ প্রতিরোধ
সংক্রামক ব্যাধি, জীবাণু এবং যেকোনো আক্রমণ থেকে দেহকে প্রাথমিক সুরক্ষা দেয় স্ট্রবেরির ভিটামিন ‘সি’। এই ফল নিয়মিত খেলে সাধারণ সর্দি-জ্বর থাকে না। বুকের কফ দূর হয়ে যায়। রক্তের শ্বেত কণিকার সংখ্যা বাড়ে।

আরথ্রাইটিস ও গেঁটেবাত
পেশি ও টিস্যুর অব্যবস্থাপনার কারণে হাড়ের সংযোগস্থলগুলোতে পিচ্ছিল তরলের পরিমাণ কমে আসে। এ কারণেও বিষাক্ত উপাদান ও এসিডের পরিমাণ বাড়তে থাকে। ক্রমেই তা আরথ্রাইটিস ও গেঁটেবাতের পরিস্থিতি তৈরি করে। এ থেকে মুক্তি দিতে পারে স্ট্রবেরির অ্যান্টি-অক্সিডেন্টগুলো।

Check Also

ইফতারিতে থাক সফেদা

দিনের দৈর্ঘ্য এখনো বাড়ার ওপরই আছে। তাই দীর্ঘসময় ধরে সংযমের পর এমন দিনে ইফতারে চাই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Website Designed, Developed & Hosted by themekiller.com